মৌজা বলতে কি বুঝায় | মৌজা বের করার নিয়ম

বাংলাদেশ সরকার বর্তমান সময়ে ক্রমাগত জমির জায়গার হিসাব রক্ষণাবেক্ষণের জন্য বিভিন্ন ধরনের ডিজিটাল প্রক্রিয়া ব্যবহার করছে। যার প্রধান ও প্রথম কারণ হচ্ছে দিন দিন জমি জায়গা সংক্রান্ত সমস্যাগুলো বৃদ্ধি পাওয়া। 
বাংলাদেশ ম্যাপ
বাংলাদেশ ম্যাপ

সুতরাং আমি আপনাকে এটি পরামর্শ দিতে পারি যে, জমি জায়গা সংক্রান্ত সকল বিষয়গুলো আপনার জানা ও বুঝা উচিত। আর এজন্যই সর্বপ্রথমেই জানতে হবে, আপনার জমি ঠিক কোন মৌজার মধ্যে অবস্থিত সেটি। 

আর তাই আজকে আমি আপনাদের সাথে মৌজা কি ও কিভাবে মৌজা বের করতে হয় সেই বিষয়টি নিয়ে বিস্তারিত তথ্য সরবরাহ করার চেষ্টা করব ইনশাআল্লাহ।

মৌজা এর ইংরেজি কি?

মৌজা এর ইংরেজি হল (Village) বা (Place)।

মৌজা মানে কি?

মৌজা মানে হচ্ছে বাংলাদেশ সরকারের রাজস্ব আদায়ের সর্বনিম্ন একক এলাকা। মুঘল আমলে মৌজা শব্দটি রাজস্ব আদায়ের একক হিসেবে ব্যাপকভাবে ব্যবহার করা হত।

মৌজা কি?

মৌজা হল ভূমি এলাকায় অবস্থিত নকশা। তবে মৌজা বলতে সাধারণত গ্রামকে বুঝায়। পুরো এরিয়াকে মৌজায় ভাগ করে দেওয়ার ফলে জমি সংক্রান্ত যেকোন সরকারি কাজ করতে অনেক সুবিধা ও সময় সাশ্রয়ী হয়।

আর তাই আমরা এটি বলতে পারি যে মৌজা নির্দিষ্ট বসতিগুলোকে বিভক্ত করে ও এটি তাদের সুবিধা প্রদান করার একটি মাধ্যম। অনেক মানুষ মৌজা ও গ্রামের মধ্যে পার্থক্য খুঁজে থাকে।

তবে প্রকৃতপক্ষে মৌজা ও গ্রাম ঠিক এক বিষয়। মৌজা নিয়ে চিন্তার কোন ধরনের কারণ নেই। আমাদের এই আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়ে আপনি মৌজা চেক ও মৌজা ডাউনলোডসহ মৌজা সম্পর্কিত বিষয়গুলো সম্পর্কে জানতে পারবেন। সুতরাং পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়তে থাকুন।

মৌজা কাকে বলে?

মৌজা হল জমি সংক্রান্ত বিষয়ে বহুল প্রচলিত একটা শব্দ। যা CS জরিপের সময় থানা ভিত্তিক এক বা একাধিক গ্রাম, ইউনিয়ন, পাড়া কিংবা মহল্লা আলাদা করে বিভিন্ন এককে ভাগ করে ক্রমিক নাম্বার দেওয়া হয়। আর বিভক্তকৃত এই প্রত্যেকটি একককে মৌজা বলা হয়।

কিভাবে মৌজা বের করতে হয়?

আপনার জমি আসলে কোন স্থানে অবস্থিত সেটি দেখতে আপনাকে বাংলাদেশ সরকারের অনুমোদিত একটি সরকারি ওয়েবসাইট ভিজিট করতে হবে। তাছাড়া কিভাবে মৌজা বের করবেন সেটির আগে আপনার জানা একান্ত জরুরি যে, 

এটি করতে আপনার একটি ভাল মানের ইন্টারনেট সংযোগ ও একটি ডিভাইসের প্রয়োজন হবে। মৌজা খোঁজার জন্য আপনাকে প্রথমে eporcha.gov.bd এই ওয়েবসাইটটিতে যেতে হবে। এরপর ওয়েবসাইটটি ভিজিট করলে আপনার সামনে একটি পেইজ ওপেন হবে। 

আর এটি হল বাংলাদেশ সরকারের ভূমি মন্ত্রণালয়ের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট। এখন মৌজা খুুুঁজার জন্য ছবিতে মার্ক করা অপশনটিতে সর্বপ্রথম ক্লিক করবেন এবং উপরের মার্ক করা অপশনে ক্লিক করলে নিচের ছবির মতো আরও একটি পেইজ ওপেন। 

এখন উপরের মার্ক করা স্থানে আপনার এলাকার তথ্য প্রদান করুন। ই-পর্চা এর eporcha.gov.bd এই ওয়েবসাইটে সর্বপ্রথম আপনাকে আপনার বিভাগ > জেলা > উপজেলা/সার্কেল ও সর্বশেষে আপনার মৌজা নির্বাচন করতে হবে।

এরপরে দাগ নাম্বার অনুযায়ী অথবা সিট অনুযায়ী অনলাইন থেকে মৌজা বের করতে অনুসন্ধান বাটনে ক্লিক করবেন। এখন নিচের ছবির মতো আপনার মৌজা ম্যাপ দেখতে পাবেন।

মৌজা ম্যাপ কিভাবে ডাউনলোড করবেন?

এখন যদি মৌজা ম্যাপ হাতে পেতে চান কিংবা ডাউনলোড করতে চান তাহলে তার জন্য আপনাকে কিছু অর্থ খরচ হবে। আপনি যদি মৌজা এর ম্যাপ প্রিন্ট কিংবা ডাউনলোড করতে চান তবে আপনাকে অবশ্যই কিছু পরিমাণ অর্থ প্রদানের পরে আবেদন করতে হবে। 

অর্থ প্রদানের পর “সার্টিফাইড কপি পেতে আবেদন করুন” এই অপশনে ক্লিক করবেন। পেমেন্ট প্রদানের সময়, আরও একটি ফর্ম থাকবে, যেখানে আপনাকে সেই ঠিকানা দিতে হবে যেখানে আপনি মৌজাগুলো নিয়ে আসবেন ও আপনার ভোটার আইডি কার্ড নাম্বারসহ আরও তথ্য সরবরাহ করতে হতে পারে।

জমির মৌজা রেট কত?

জমির মৌজা পর্চার রেট বিভিন্ন এলাকাভেদে ভিন্নতা থাকতে পারে। সুতরাং মৌজা পর্চার সঠিক রেট সম্পর্কে জানতে ই-পর্চার অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে যাবেন এবং আপনার এলাকা সম্পর্কে তথ্য দিন তারপর আপনি সহজেই মৌজা পর্চার ডাউনলোডের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

কিভাবে মৌজা থেকে দাগ দেখা যায়?

এখন অনলাইনে কোন ধরণের হয়রানি ছাড়াই জমির মৌজা ম্যাপ থেকে খুব সহজে দাগ দেখা যায় ও এটি অবশ্যই মৌজা পর্চা হাতে পাওয়ার পরে।

মৌজা এবং গ্রামের মধ্যে পার্থক্য?

সত্যি বলতে মৌজা ও গ্রামের মধ্যে তেমন কোন পার্থক্য নেই। যার নাম গ্রাম ঠিক তার নামই হল মৌজা।
Md Atiqul Islam

Founder and Editor of Textile BD. He is a Textile Blogger & Entrepreneur. He is working as a textile job in Bangladeshi companies.

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)
নবীনতর পূর্বতন
banner